রাসায়নিক বিক্রিয়া এবং সমীকরণ থেকে কিছু প্রশ্নের উত্তর

 Q. 1. রাসায়নিক বিক্রিয়া কাকে বলে? উদাহরণসহ ব্যাখ্যা করাে।

    উত্তর : এক বা একাধিক পদার্থের রাসায়নিক পরিবর্তনে পদার্থগুলির অণুর গঠন পরিবর্তিত হয়ে সম্পূর্ণ নতুন ধর্ম বিশিষ্ট এক বা একাধিক পদার্থের অণু গঠিত হওয়ার প্রক্রিয়াকে বলা হয় রাসায়নিক বিক্রিয়া। এতে পদার্থের মূল উপাদান অর্থাৎ পরমাণুর সংখ্যার কোনাে পরিবর্তন হয় না।

       যেমন, সালফিউরিক অ্যাসিড (H2SO4) এবং ক্যালসিয়াম অক্সাইড (CaO) এর রাসায়নিক বিক্রিয়ায় ক্যালশিয়াম সালফেট (CaSO4) লবন ও জল (H2O) উৎপন্ন হয়।

        CaO+ H2SO = CaSo4 + H2O


Q. 2. রাসায়নিক সমীকরণ কাকে বলে? উদাহরণ দাও। 

  উত্তর : বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থগুলির মধ্যে সমতা বজায় রেখে তাদেরকে চিহ্ন ও সংকেতের সাহায্যে লিখে কোনাে রাসায়নিক বিক্রিয়াকে সংক্ষিপ্তাকারে প্রকাশ করার পদ্ধতিকে বলা হয় রাসায়নিক সমীকরণ।

  উদাহরণ : লঘু সালফিউরিক অ্যাসিডে (H2SO) জিঙ্কের ছিবড়া (Zn) ফেললে জিঙ্ক সালফেট (ZnSO4) ও হাইড্রোজেন (H2) উৎপন্ন হয়। এই রাসায়নিক বিক্রিয়ায় বিক্রিয়ক হল H2So4 এবং Zn; বিক্রিয়াজাত পদার্থ হল ZnSO4 এবং H2। 

এই বিক্রিয়ার সমীকরণটি হল,

          H2So4 + Zn = ZnSO4 + H2

Q. 3. কপার সালফেটের জলীয় দ্রবণে জিংক যােগ করলে কী ঘটে? বিক্রিয়ার সমিত সমীকরণ দাও।

   উত্তর: কপার সালফেটের জলীয় দ্রবণে জিংক ধাতু যােগ করলে জিংক কপার সালফেটের কপারকে প্রতিস্থাপিত করে।
যার দরুন নীল বর্ণের কপার সালফেট দ্রবণ বর্ণহীন জিংক সালফেট দ্রবণে পরিণত হয়। জিঙ্কের টুকরাের ওপর লালচে বাদামী বর্ণের কপার জমা হয়।
   বিক্রিয়ার সমীকরণটি হল,
        CuSO4 + Zn → ZnSO4 + Cu

Q. 4. (i) মরচে পড়াকে মৃদু দহন বলা হয় কেন?
(ii) ধাতুনির্মিত বস্তুকে অনেক সময় ভােলা অবস্থায় রেখে দিলে অনুজ্জ্বল হয়ে পড়ে কেন? 

    উত্তর : (i) লােহাকে আর্দ্র বায়ুতে ফেলে রাখলে তার ওপর লালচে-বাদামি বর্ণের যে আস্তরণ পড়ে, তাকে মরচে বলে। মরচে
পড়ার সময় সামান্য তাপ উৎপন্ন হলেও আলাে উৎপন্ন হয় না। তাই মরচে পড়াকে সম্পূর্ণ দহন না বলে মৃদু দহন বলা হয়।
              (ii) আয়রন, কপার, সিলভার প্রভৃতি ধাতুকে কিছুকাল ভােলা অবস্থায় রেখে দিলে তাদের ঔজ্জ্বল্য নষ্ট হয়ে যায়।
কারণ ঐসব ধাতুর ওপর অক্সাইডের আস্তরণ পড়ে। যেমন, আয়রন-নির্মিত বস্তুকে বায়ুতে কিছুদিন রেখে দিলে ওই বস্তুর ওপর বাদামি বর্ণের মরচে গঠিত হয়। আবার বায়ুতে অনেকদিন রেখে দিলে কপার-নির্মিত বস্তুর ওপর সবুজ বর্ণের
আস্তরণ গঠিত হয়।

Q. 5.খাদ্যদ্রব্যকে পচনের হাত থেকে রক্ষা করার দুটি উপায় লেখাে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কী? এটি কোথায় ব্যবহার করা হয় ?

  উত্তর : খাদ্যদ্রব্যকে পচনের হাত থেকে রক্ষা করার দুটি উপায় হল – (i) অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যােগ করা ও (ii) বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্যের প্যাকেটে নাইট্রোজেন গ্যাস ভরা। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও প্রক্রিয়াকরণজাত খাদ্যের মধ্যস্থিত ফ্যাট জাতীয় পদার্থের ওপর বায়ুর জারণঘটিত প্রভাব হ্রাস করার জন্য তাতে যে রাসায়নিক পদার্থ যােগ করা হয় তাকে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বলে। এটি ফ্যাট বা তৈল জাতীয় খাবারে দুর্গন্ধতার সম্ভাবনা হ্রাস করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

Q. 6. উত্তপ্ত প্লাটিনাম তার জালির ওপর দিয়ে অ্যামােনিয়া গ্যাস চালনা করলে তারজালি আরও উজ্জ্বল হয়ে উঠে কেন?

   উত্তর : প্লাটিনাম (Pt) তারজালির সংস্পর্শে বায়ু ও অ্যামােনিয়া (NH,) মিশ্রণ চালনা করলে বায়ু দ্বারা NH, জারিত হয়ে নাইট্রিক অক্সাইড (NO) উৎপন্ন করে। বিক্রিয়াটি তাপমােচী প্রকৃতির হওয়ায় উৎপন্ন তাপ তারজালির তাপমাত্রা বৃদ্ধি
করে। ফলে তারজালি আরও উজ্জ্বল হয়ে ওঠে।
         4NH3 + 5O2= 4NO + 6H2O




Post a Comment

Previous Post Next Post