ফটোগ্রাফি করার জন্য কম বাজেটের মধ্যে কোন ক্যামেরা কিনবেন (Which Camera Should I buy in lower budget

 ফটোগ্রাফি  করার জন্য কম বাজেটের  মধ্যে কোন ক্যামেরা ও কী কী লেন্স ব্যবহার করবেন। 


      

        ফটোগ্রাফি শুরু করার জন্যে এখন কার দিনে আপনার মোবাইলই যথেষ্ট। তবে প্রফেশনাল লেভেলের অর্থাৎ টাকা উপার্জনের কোনো প্রচেষ্টা মাথায় থাকলে আপনি কিছু টাকা ব্যায় করে NIKON কিংবা SONY এর  ক্যামেরা গুলো দেখতে পারেন। NIKON এর কথা যদি বলি তাহলে শুধু  ফটোগ্রাফি এর চিন্তা যদি মাথায় থাকে তাহলে আপনি এটি কিনতে পারেন আর SONY এর কথা বলতে গেলে আপনি যদি Cinematography বা Highlights করতে ভালবাসেন তাহলে এটা খুব ভালো একটা অপশন হবে আপনার জন্যে, কারণ SONY ব্র্যান্ড এর ক্যামেরা গুলোর ফোকাস করার ক্ষমতা অনেক বেশি, কিন্তু ছবি তুলার জন্যে আমি SONY কে বেশি প্রাধান্য দেই না। আমি নিজেই ইউজ করেছি এবং অনেকের তুলা ছবিও দেখি কিন্তু SONY ক্যামেরার ধারা ক্লিক করা ফটো এর মধ্যে আমার এমন একটা আবেগ অনুভূতি হয়না যেমনটা NIKON এ অনুভূত হয়। 


      

        আমার নিজের DSLR কেনার আগে আমি অনেক দিন ধরে শুধু গবেষণাই করেছি যে, কোন ক্যামেরা কোন কাজ ভালো করে। আর কোন ক্যামেরা আমার বাজেট এর মধ্যে ভালো হবে। ক্যামেরা কেনার পর আরো স্টাডি করলাম এই বিষয়ে। তারপর লেন্স কি কি কিনবো এটাও অনেক বার ভাবতে হয়েছিলো আমাকে ! প্রথমে আপনার জানতে হবে যে, আপনার কোন বিষয়টি ভালো লাগে এই আর্টিস্টিক ওয়ার্ল্ডে এবং কোন বিষয়ে আপনি নিপুণ। 


Nikon D7200 + 85mm

    

       যেমন ধরুন আপনি মানুষের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বা কোনো রকম বিবাহ অনুষ্ঠানে ফটো ক্লিক করতে চান তাহলে আপনার জন্যে NIKON এর ক্যামেরা হতে পারে D5600, D7200, D750 এবং SONY এর ক্যামেরা হতে পারে Sony Alpha ILCE 6000L, Alpha ILCE 6000Y, Alpha ZV ইত্যাদি। তার পাশাপাশি লেন্স 17-50mm f- 1.8, 35mm f-1.8, 50mm f-1.8 বেস্ট চয়েস হবে কম বাজেট এর মধ্যে। আর আপনি যদি Outdoor Portrait shoot ভালবাসেন তাহলে 50mm, 85mm, 70-300mm, 70-300mm লেন্স গুলি কিনতে পারেন আর যদি landscape ভালো লাগে তাহলে প্রাথমিক ভাবে 10-20mm দিয়ে স্টার্ট করতে পারেন। আমি এগুলির মধ্যে বেশ কিছু লেন্স ব্যবহার করেছি । মাথায় রাখতে হবে এদের মধ্যে যদি আপনি 70-300mm এবং 10-20mm গুলি ব্যবহার করেন তাহলে অনেক ভালো আলোকরশ্মির প্রয়োজন কারণ এই লেন্সগুলির Aperture অনেক কম। 


     

         আপাতত শুরু করার জন্যে SONY & NIKON এই দুইটাই বেস্ট আপনার জন্য । এর পর আস্তে আস্তে আপনার চাহিদা অনুযায়ী লেন্স ব্যবহার করে করে আপনার মনের মতো লেন্স বাছাই করতে পারেন। 

       এখানকার দিনে আপনার সমস্যা হবে কোথায় জানেন, DSLR এবং MIRRORLESS এর মধ্যে কোনটা বেস্ট হবে সেটা বিচার করতে। 

        সাধারণত DSLR গুলির মধ্যে Crop এবং full সেন্সর সিস্টেম বর্তমান কিন্তু mirrorless এর বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই full সেন্সর সিস্টেম, crop সেন্সর সিস্টেম নেই বললেই চলে। 

       আমি তাদের মধ্যে DSLR কেই বেশি প্রাধান্য দেই, কারণ এটা আমার বাজেট এর মধ্যে পরে এবং অনেক লেন্স ও বাজারে বর্তমান আছে। 

      এই দুটি ব্র্যান্ড এর ক্যামেরা গুলির কন্ট্রোলিং এ অনেক সুবিধা । যদি শুরু করেন তাহলে মোটামুটি এক মাসের মধ্যে আয়ত্ব করতে পারবেন।

আমার তোলা কিছু ছবি নিচে দিয়ে দিলাম। যদি আপনাদের কিছু জানতে হয় এই বিষয়ে তাহলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।










Post a Comment

Previous Post Next Post